বাংলাকর্ড সাইটের পরিবর্তন

সম্পাদক

সেপ্টেম্বর ১৯ , ২০১৬
বাংলাকর্ডের প্রতি আপনার আগ্রহের জন্য ধন্যবাদ। বিশেষ কিছু কারনে সাইটের পুরো কোড পিএইচপি থেকে সি# ডট.নেট রূপান্তর করা হয়েছে। পুরনো সাইটের সব গান, এবং প্রায় সব ফোরাম পোস্ট অবিকল আছে। তবে স্বভাবতই ইউআরএল পরিবর্তন হয়ে গেছে, পুরনো ইউআরএল যদিও কাজ করার কথা। বিস্তারিত ...

মাঝারি কঠিন পাঠ-১-নোট, কর্ড ও স্কেলের ধারণা

সম্পাদক , ট্যাগ: গিটার পাঠ | মাঝারি কঠিন

মার্চ ১৩ , ২০০৮
গিটার বা যে কোন যন্ত্র শিখতে হলে প্রথমেই নোট কর্ড ও স্কেল সম্পর্কে ধারণা থাকা প্রয়োজন। গান গাইতে গেলেও এ ধারণাগুলো থাকা দরকার। এ পাঠে আমি সহজ কথায় এ বিষয়গুলো বোঝানোর চেষ্টা করব। নোট: আমরা সবাই জানি কোন জিনিশ কাঁপলে তা থেকে শব্দ তৈরী হয়। জিনিশটি কত দ্রুত কাঁপছে বা কম্পাংক কত (প্রতি সেকেন্ড কাঁপার হার) তার উপর নির্ভর করে শব্দটি কতটা তীক্ষ্ণ। প্রতিটি বাদ্যযন্ত্রেই কোন উপায়ে (আঘাত করে বা বায়ু প্রবেশ করিয়ে) শব্দ তৈরী করা হয়। নোট বা স্বর হচ্ছে একটি বিশেষ কম্পাংক (যা গুণীজনেরা আগে থেকে নির্ধারণ করে দিয়েছেন)। হারমোনিয়াম বা কিবোর্ডের প্রতিটি চাবিতে (বা রিডে) এক একটি নোট থাকে। গিটারে প্রতিটি তারের প্রতিটি ফ্রেটে একটি নোট থাকে। বিস্তারিত ...

সহজ পাঠ-২-কর্ড চার্ট ও ট্যাব

সম্পাদক , ট্যাগ: গিটার পাঠ | সহজ

মার্চ ১৩ , ২০০৮
কর্ড চার্ট: কর্ড হলো গিটারের একাধিক তার একসাথে বাজানো। বামহাতে আমরা ফ্রেটবোর্ডের বিভিন্ন অবস্থানে ধরে ডান হাতের পিক দিয়ে সবগুলো তার একসাথে বাজাব। কর্ডের গঠন, নাম ইত্যাদি পরে কোন এক পাঠে বিস্তারিত আলোচনা হবে। বাম হাতের কোন আঙুল দিয়ে কোন তার ধরতে হবে তা কর্ড চার্টের মাধ্যমে দেখানো হয়। সুবিধার জন্য বাম হাতের আঙুলগুলোকে সংখ্যা দিয়ে প্রকাশ করা হয়। যেমন- তর্জনী ১, মধ্যমা ২, অনামিকা ৩ আর কনিষ্ঠা ৪। কর্ডচার্টে মূলত গিটারের ফ্রেটবোর্ডের যে অংশটুকুতে আঙুল থাকে তাই ছবির মাধ্যমে দেখানো হয়। ছবির উপরের দিককে গিটারের নেকের দিক ধরা হয়। আর ডানদিকের তারকে সবচেয়ে সরু বা ১নং তার ধরা হয়। অন্য কথায় গিটার বাজানোরত অবস্থায় সামনে থেকে ছবি তুললে যে রকম দেখাবে তাই কর্ডচার্টে দেখান হয়। নীচে A মেজর কর্ডের কর্ডচার্ট ও আঙুল ধরার পদ্ধতি দেখানো হলো। বিস্তারিত ...

সহজ পাঠ-৩- গিটার ধরা ও কর্ড বাজানোর পদ্ধতি

সম্পাদক , ট্যাগ: গিটার পাঠ | সহজ

মার্চ , ২০০৮
গিটার ধরা ও আসন: জুতমতো গিটার বাজাতে হলে প্রথম অবস্থায় টুল বা হাতল ছাড়া চেয়ারে মেরুদণ্ড সোজা করে বসার নিয়ম। এক সময় যখন আয়ত্বে চলে আসবে তখন নিজের সুবিধামতো বসলেই হলো। ডান হাটুর উপর গিটারের বডির উরের দিক রেখে বাম হাতে ফ্রেট বোর্ডের নিচ দিয়ে ধরতে হবে। ডান হাত পুরোপুরি মুক্ত থাকবে, আঙুলে থাকবে পিক। ফ্রেটবোর্ডের সামনের দিক, চোখের প্রায় সমান্তরালে থাকবে, শুধু একটু দেখতে পারলে হয় বাম হাতের আঙুলগুলো কোন ফ্রেটের কোন তারে বসছে। বিস্তারিত ...

সহজ পাঠ-৪- তাল বা রিদম ও লয়

সম্পাদক , ট্যাগ: গিটার পাঠ | সহজ

মার্চ , ২০০৮
তাল বা রিদম:
কবিতার যেমন ছন্দ, গানের তেমন তাল। তাল ছাড়া গান হয় না। তাল হলো সময়ের সাথে গানের কথার চলমান ছন্দ। তাল গঠিত হয় মাত্রা ও ভাগ দিয়ে। যেমন আমাদের দেশীয় সংগীতের দাদরা তাল হয় ৬ মাত্রার যার দুটি ভাগ থাকে। মাত্রা হচ্ছে তালের ক্ষুদ্রতম একক। গানে তাল বাজানো হয়, তবলা বায়া বা ড্রামের সাহায্যে। অনেক সময় গিটারের কর্ড বাজিয়েও তাল বাজানো হয়। তালের প্রতিটি মাত্রায় তবলা/বায়া বা ড্রামের এক বা একাধিক বোল বাজানো হয়, অথবা ফাঁক দেয়া হয় (বাজানো হয় না)। তাল প্রকাশ করার জন্য সুনির্দিষ্ট কোন সহজ চার্ট নেই। গিটারে বাজানোর সময় কীভাবে বাজাতে হবে তা অনেক সময় পিকের আপ বা ডাউন দিয়ে দেখানো হয়। যেমন, নীচের চিত্রে দেখানো দাদরা তালে প্রথম দু মাত্রায় পিক উপরে থেকে নীচে, এবং পরের মাত্রায় পিক নীচ থেকে উপরে বাজাতে হবে। দাদরাকে পশ্চিমা নিয়মে ওয়াল্টজ (Waltz) বলে, আর মাত্রাকে মেজার (Measure) এবং ভাগকে বার (Bar)। তাল রাখার জন্য অনেকে বাম বা ডান পায়ে মৃদু আঘাত করে। দেশীয় পদ্ধতিতে তুড়ি মেরে বা হাত তালি দিয়েও তাল শেখানো হয়। বিস্তারিত ...
বাংলাকর্ড